Breaking



বুধবার, ৯ জুন, ২০২১

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা যোগ্যতা এবং কার্যক্ষমতা

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা যোগ্যতা 

এবং কার্যক্ষমতা 

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা যোগ্যতা এবং কার্যক্ষমতা
ভারতের প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা যোগ্যতা এবং কার্যক্ষমতা 


    ১. ভারতীয় সংবিধানের ৭৪ নং ধারা অনুসারে রাষ্ট্রপতিকে তার কার্যাবলী সম্পাদনের ক্ষেত্রে সাহায্য ও পরামর্শদানের জন্য একটি মন্ত্রীসভা থাকবে এবং তার শীর্ষে থাকবেন প্রধানমন্ত্রী। অতএব সংবিধান অনুসারে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হলেন মন্ত্রীসভার নেতা ও প্রশাসনিক ক্ষেত্রে প্রকৃত শাসক প্রধান।

    সংবিধানের ৭৫ নং ধারা অনুসারে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতি কর্তৃক নিযুক্ত হবেন এবং প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শক্রমে রাষ্ট্রপতি অন্যান্য মন্ত্রীদের নিযুক্ত করবেন। সাধারণত লােকসভার সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের। নেতাকেই রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নিযুক্ত করেন। প্রধানমন্ত্রী হতে গেলে ন্যূনতম বয়স ২৫ বছর হতে হবে। ভারতীয় নাগরিক হতে হবে। 


    ২. প্রধানমন্ত্রীর কার্যকাল পাঁচবছর। অন্যভাবে বলতে গেলে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যকাল লােকসভার আয়ুস্কালের সমান। লােকসভা বা রাজ্যসভার সদস্য না হয়েও ছয় মাসের জন্য প্রধানমন্ত্রী বা অন্যান্য দপ্তরের মন্ত্রী হওয়া যায়। প্রধানমন্ত্রী সরকারের মধ্যমণি ও কেন্দ্রীয় ব্যক্তিত্ব। প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রিসভা লােকসভার কাছে যৌথভাবে দায়িত্বশীল। লােকসভায় কোন মন্ত্রীর পরাজয়কে সমগ্র মন্ত্রীসভার পরাজয় হিসাবে গণ্য করা হয় এবং প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হয়।


    ৩. মন্ত্রীপরিষদ ও প্রধানমন্ত্রী: 


    প্রধানমন্ত্রী হলেন মন্ত্রীপরিষদের কেন্দ্রবিন্দু। ক্যাবিনেট মন্ত্রী, রাষ্ট্রমন্ত্রী ও উপমন্ত্রী নিয়ে মন্ত্রীপরিষদ (সভা) গঠিত হয়। ক্যাবিনেট সরকারের নীতি ও প্রয়ােগ মুখ্য ভূমিকা পালন করে। রাষ্ট্রমন্ত্রীরা কোন বিভাগের দায়িত্ব বা ক্যাবিনেট মন্ত্রীর সহায়ক হতে পারেন। উপমন্ত্রীরা সংশ্লিষ্ট দপ্তরের মন্ত্রীদের সাহায্য করা। ক্যাবিনেটের সভায় সাধারণত রাষ্ট্রমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীরা থাকতে পারেন না। প্রধানমন্ত্রী হলেন ক্যাবিনেটের নেতা, ক্যাবিনেটের সভার তিনি সভাপতিত্ব করেন।


    ৪. প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা : 


    প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতির প্রধান পরামর্শদাতা। ৪২ তম সংশােধনী অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ মানতে বাধ্য। তিনি মন্ত্রীসভার নেতা। মন্ত্রীসভার ওপর প্রধানমন্ত্রীর কর্তৃত্ব সুপ্রতিষ্ঠিত। তিনি সংসদের উভয়কক্ষে উপস্থিত। থাকতে পারেন, সংসদের নেতাও বটে। রাষ্ট্রপতি ও মন্ত্রীসভার সঙ্গে যােগসূত্র হিসাবে কাজ করেন প্রধানমন্ত্রী। পররাষ্ট্র নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে তিনি মুখ্য ভূমিকা নেন। সর্বোপরি তিনি জননেতা হিসাবে সিরকার ও জনগণের মধ্যে যােগসূত্র রক্ষা করেন।

    ৫. প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শে রাষ্ট্রপতি অঙ্গরাজ্যের রাজ্যপাল, অ্যাটর্নি জেনারেল, নির্বাচন কমিশনের সভাপতি ও সদস্য, ইউনিয়ন পাবলিক সার্ভিস কমিশনের সভাপতি ও সদস্য, রাষ্ট্রদূত প্রভৃতি পদাধিকার ব্যক্তিদের নিয়ােগ করেন। ভারত সরকারের সব ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা কর্তৃত্বের ব্যাপক বিস্তারের পরিপ্রেক্ষিতে অনেকে| ভারতের শাসনব্যবস্থাকে ক্যাবিনেট শাসন ব্যবস্থা বলার পরিবর্তে ‘প্রধানমন্ত্রী শাসিত শাসনব্যবস্থা’ বলার পক্ষপাতী।


    ৬. লােকসভায় প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকা : 


    তিনি লােকসভার নেতা, লােকসভার অধিবেশন কখন আহ্বান করা হবে, কতদিন অধিবেশন চলবে, কোন্ কোন্ বিষয় আলােচিত হবে প্রভৃতি বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতিকে পরামর্শ দিয়ে থাকেন।


    ৭. অন্যান্য ভূমিকা : 


    প্রধানমন্ত্রী অনুমােদন ব্যতিরেকে কেউ মন্ত্রী হতে পারেন না। প্রধানমন্ত্রীর অনুরােধে বা নির্দেশে মন্ত্রীদের মন্ত্রীসভা থেকে পদত্যাগ করতে হয়। তিনি যােজনা কমিশনের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। 

    • আরও কিছু তথ্য • 


    • স্বাধীন ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হন জওহরলাল নেহরু।  
    • ভারতের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী হন শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধি। 
    • ভারতের প্রথম কার্যনির্বাহী প্রধানমন্ত্রী হন গুলজারিলাল নন্দ (27 May 1964 - 9 June 1964) 
    • প্রধানমন্ত্রী হিসাবে বিদেশে মারা যান লালবাহাদুর শাস্ত্রী (11 January 1966 তাসখন্দে) 
    • উত্তরপ্রদেশে থেকে ভারতের বেশি সংখ্যক প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। 
    • প্রধানমন্ত্রীর অনুরােধে পদত্যাগ করেছেন - সি.ভি. দেশমুখ, ভি.ভি.গিরি, শ্যামাপ্রসাদ মুখােপাধ্যায় প্রমুখরা
    • প্রধানমন্ত্রীর বিরাগভাজন হয়ে পদত্যাগ করেছেন- বিশ্বনাথ প্রতাপ সিংহ, দেবিলাল প্রমুখরা। 
    • রাজ্যসভার সদস্য হয়ে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে প্রথম নিযুক্ত হন শ্ৰীমতী ইন্দিরা গান্ধি (১৯৬৬ খ্রিঃ) 
    • ভারতীয় সংবিধানে কোন উপ-প্রধানমন্ত্রী পদের উল্লেখ নেই। 
    • ভারতের প্রথম উপ-প্রধানমন্ত্রী হল সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল। 
    • মােরারজী দেশাইয়ের প্রধানমন্ত্রীত্বের সময় ২জন উপ-প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। যথা— চরণ সিং ও জগজীবন রাম। 
    • প্রধানমন্ত্রীকে শপথ বাক্য পাঠ করান ভারতের রাষ্ট্রপতি। 
    • ৯১ তম সংবিধান সংশােধন অনুযায়ী প্রধামন্ত্রীসহ মন্ত্রীসভার সদস্য সংখ্যা লােকসভার মােট সদস্য সংখ্যার শতকরা ১৫ ভাগের বেশি হবে না।

    কোন মন্তব্য নেই:

    একটি মন্তব্য পোস্ট করুন